আর্কাইভ

Posts Tagged ‘বাংলা উইকিপিডিয়া’

উইকিপিডিয়া এবং কমন্সে জিওকোডিং

নভেম্বর 25, 2012 মন্তব্য দিন

সহজ ভাষায় জিওকোডিং হচ্ছে কোন মিডিয়া যেমন ছবি, ভিডিওতে সংশ্লিষ্ট অবস্থান বা লোকেশন যোগ করা। সাধারণত latitude এবং longitude দ্বারা ছবি বা ভিডিও ধারণের স্থান চিহ্নিত করা হয়। উইকিপিডিয়ার কোন স্থান বা মনুমেন্ট সম্পর্কিত নিবন্ধেও জিওট্যাগ যুক্ত করা হয়। যাতে সহজেই মানচিত্রে ঐ নিবন্ধের বিষয়টি সহজে শনাক্ত করা যায়। এছাড়া উইকিমিডিয়া কমন্সের ছবি বা ভিডিও ফাইলেও  জিওকোড অথবা অবস্থান সম্পর্কিত তথ্য যুক্ত করা হয়। তবে বাংলাদেশ বা ভারত সম্পর্কিত উইকিপিডিয়া নিবন্ধ এবং কমন্সে আপলোডকৃত ছবিতে অবস্থান সম্পর্কিত তথ্যের অনুপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। খুব সহজেই আমরা উইকিপিডিয়া নিবন্ধে এবং কমন্সের ছবিতে জিওকোড যুক্ত করতে পারি।

জিওকোড যোগ করতে আমাদের প্রয়োজন হবে কোনস্থানের সংশ্লিষ্ট স্থান বা মনুমেন্টের সঠিক latitude এবং longitude তথ্য। এ তথ্য পেতে আমি জিওলোকেটর নামক একটি ওয়েবটুল ব্যবহার করি। যার মাধ্যমে খুব সহজেই কোন স্থানের জিওলোকেশন তথ্য পাওয়া যায় এবং তা উইকি টেমপ্লেটে সন্বিবেশ করা যায়।

জিওলোকেটরের ওয়েব ঠিকানাঃ http://tools.freeside.sk/geolocator/geolocator.html

টেমপ্লেট লিঙ্কসমূহ

জিওলোকেটরের মানচিত্র থেকে যেকোন স্থান অনুসন্ধান করুন বা খুঁজে নিন। মানচিত্রের কাঙ্খিত স্থানে কিবোর্ডের Ctrl বা Alt বোতাম চেপে মাউস ক্লিক করুন। তাতে ঐ স্থানটি মার্ক হবে। এবং ঐ স্থানের latitude এবং longitude তথ্য পাশে দেখা যাবে। জিওলোকেটরের নিচের দিকে উইকিপিডিয়ার বেসিক এবং সাধারণ টেমপ্লেটগুলোতে এ তথ্য সন্বিবেশিত অবস্থায় দেখাবে। প্রয়োজনীয় টেমপ্লেটটি ক্লিক করে কপি করে যেকোন উইকিপিডিয়া নিবন্ধে এবং উইকিমিডিয়া কমন্সের ছবির পাতায় বর্ণনার নিচে যোগ করতে হবে। সাধারণত উইকিপিডিয়াতে {{coord}} টেমপ্লেট এবং ছবিতে {{location}} বা {{location dec}} টেমপ্লেট ব্যবহার করা হয়।

সকল অবদানকারী যদি জিওকোডিং সম্পর্কে আরও বেশি সচেতন হন এবং তাদের নিবন্ধে এবং ছবিতে এর অবস্থানের তথ্য যোগ করেন তাহলে সার্বিকভাবে উইকিপিডিয়ার নিবন্ধ এবং ছবির মান বাড়বে। আসুন উইকিপিডিয়ার নিবন্ধে এবং কমন্সে আপলোডকৃত ছবিতে জিওকোড যোগ করে উইকিপিডিয়ার মানোন্নয়ন করি।

বিস্তারিত দেখুনঃ http://commons.wikimedia.org/wiki/Commons:Geocoding

Advertisements

বাংলা উইকিপিডিয়া নিবন্ধে সহজে বিষয়শ্রেণী ব্যবস্থাপনা

নভেম্বর 7, 2012 মন্তব্য দিন

বাংলা উইকিপিডিয়াতে আমরা অনেক রকম কাজ করে থাকি। কখনও আমরা নতুন নিবন্ধ তৈরি করি আবার কখনও আমরা পুরনো নিবন্ধের মানোন্নয়নে কাজ করি। পুরনো নিবন্ধগুলোকে শ্রেণীবদ্ধ করতে আমরা নিবন্ধে অনেক বিষয়শ্রেণী বা ক্যাটাগরি যোগ করি। তা করতে সাধারণত নিবন্ধের এডিট মোড থেকে নিবন্ধের নির্দিষ্ট স্থানে গিয়ে বিষয়শ্রেণী যোগ করতে হয়। নিবন্ধে বিষয়শ্রেণী যোগের এ পন্থা বেশ সময় সাপেক্ষ ব্যাপার এবং বার বার এডিট মোডে যেতে হয় বলে তা প্রায়শই বিরক্তিকর হয়ে উঠে। তবে বাংলা উইকিপিডিয়র নিবন্ধে সহজেই বিষয়শ্রেণী যোগ করতে রয়েছে হটক্যাট নামের ভালো এবং কার্যকরী একটি গ্যাজেট। যার মাধ্যমে ব্যবহারকারী নিবন্ধের এডিট মোডে না গিয়ে নিবন্ধ থেকে বিষয়শ্রেণী যোগ, অপসারণ এবং পরিবর্তন করতে পারবেন। এমনকি নিবন্ধে একই এডিটে একাধিক বিষয়শ্রেণী যোগ করা যাবে।

কিভাবে বাংলা উইকিপিডিয়ায় হটক্যাট ব্যবহার করবেন?

বাংলা উইকিপিডিয়ায় হটক্যাট গ্যাজেট ব্যবহার করতে অবশ্যই আপনাকে বাংলা উইকিপিডিয়ায় নিবন্ধিত হতে হবে। আপনি যদি আগে থেকেই নিবন্ধিত এবং লগ-ইন অবস্থায় থাকেন তাহলে উইকিপিডিয়া সাইটের আমার পছন্দ অপশনে গিয়ে গ্যাজেট ট্যাব থেকে হটক্যাট সক্রিয় করুন এবং আমার পছন্দ সংরক্ষণ করুন।

গ্যাজেটটি সক্রিয় করার পরে যেকোন নিবন্ধ পাতার নিচে যে বিষয়শ্রেণী অংশ রয়েছে সেখানে কিছু অপশন যুক্ত হবে। (+) চিহ্নিত লিঙ্কে ক্লিক করার মাধ্যমে নিবন্ধের জন্য বিষয়শ্রেণী নির্বাচন বা যুক্ত করার জন্য একটি টেক্সটবক্স পাওয়া যাবে।

টেক্সটবক্সে নিবন্ধ সংশ্লিষ্ট বিষয়শ্রেণী টাইপ করুন। টাইপ করা অক্ষরের ভিত্তিতে হটক্যাট বাংলা উইকিপিডিয়ায় আগে থেকে থাকা বিষয়শ্রেণীগুলো পরামর্শ আকারে বারে প্রদর্শন করবে যেখান থেকে আপনি সঠিক বিষয়শ্রেণীটি যোগ করতে পারবেন। বিষয়শ্রেণী নির্বাচন করার পরে পাশে থেকে ঠিক বোতামটি ক্লিক করলেই বিষয়শ্রেণীটি উইকিপিডিয়ার নিবন্ধে যুক্ত হয়ে যাবে।

যদি একাধিক বিষয়শ্রেণী যোগ করার প্রয়োজন হয় তাহলে ঠিক বোতামটি চাপার আগে পাশের (+) লিঙ্কটি ক্লিক করুন তাতে পাশে আরেকটি টেক্সটবক্স পাওয়া যাবে। সংশ্লিষ্ট বিষয়শ্রেণী নির্বাচন করে ঠিক বোতাম ক্লিক করতে হবে। একই ভাবে এখানে যতগুলো প্রয়োজন বিষয়শ্রেণী যুক্ত করা যাবে। যুক্ত করা বিষয়শ্রেণী সংশ্লিষ্ট বাতিল বোতাম অথবা (x) লিঙ্ক ক্লিক করে অপসারণ করা যাবে।

এছাড়া বিষয়শ্রেণী সংশ্লিষ্ট প্লাশ মাইনাস চিহ্নিত লিঙ্কে ক্লিক করলে বিষয়শ্রেণীটি প্রতিস্থাপন করা যাবে। এছাড়াও তীর চিহ্নিত লিঙ্কগুলোর মাধ্যমে নির্বাচিত বিষয়শ্রেণীর উপবিষয়শ্রেণী (চাইল্ড) বা অধিবিষয়শ্রেণীর (প্যারেন্ট) তালিকা পাওয়া যাবে এবং বিষয়শ্রেণী নির্বাচন করা যাবে।

বিষয়শ্রেণী নির্বাচন হয়ে গেলে তা সংরক্ষণ করতে বারের সংরক্ষণ বোতামে ক্লিক করুন। এরফলে বিষয়শ্রেণীগুলো নিবন্ধের এডিট মোডে নিয়ে যাবে। এডিটমোডে আপনি চাইলে বিষয়শ্রেণীর ক্রম পরিবর্তনসহ অন্য যেকোন পরিবর্তন করতে পারেন।

এডিট মোডের সংরক্ষণ বোতাম ক্লিকের মাধ্যমে নিবন্ধে বিষয়শ্রেণী যোগ করার পন্থা সম্পন্ন করুন। এছাড়াও যেকোন নিবন্ধে (-) চিহ্নিত লিঙ্ক ক্লিক করে সংশ্লিষ্ট বিষয়শ্রেণী অপসারণ করতে পারেন।
হটক্যাট সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে দেখুনঃ http://commons.wikimedia.org/wiki/Help:Gadget-HotCat

অর্ণব দত্তের লেখা বাংলা বিশ্বকোষ: একটি ইতিহাসযাত্রা

ফেব্রুয়ারি 7, 2011 5 comments

অর্ণব দত্ত, উইকিপিডিয়া এবং উইকিসংকলনে ভারতী বাঙালি স্বেচ্ছাসেবক। উইকিমিডিয়া প্রকল্পগুলোর প্রতি অর্ণবের ভালবাসা বর্ণনা করা আমার পক্ষে সম্ভব নয় তবে একটু আঁচ দিতে বলি, শুধু বাংলা উইকিপিডিয়ায় তার সম্পাদনা সংখ্যা ১৫,০০০ এরও বেশি। বাংলা উইকিপিডিয়ায় তার ইউজার পেইজে নিজের সম্পর্কে যা লিখেছে তা হুবুহু তুলে দিলাম,

আমি অর্ণব দত্ত। আমি একজন ভারতীয়বাঙালিউইকিপিডিয়ান। আদি নিবাস বাঁকুড়া জেলা। জন্ম, শিক্ষা ও কর্মক্ষেত্র কলকাতা

আমি মূলত উইকিপিডিয়ার নিবন্ধ রচনা, সম্পাদনা ও পর্যালোচনার কাজের সঙ্গে যুক্ত। উইকিপিডিয়া ছাড়া উইকিসংকলনের সম্পাদনার কাজও করে থাকি। উইকিপিডিয়ার অলংকরণের স্বার্থে একটু আধটু ফটোগ্রাফিও করে থাকি (এখানে দেখুন)।

আমার পড়াশোনা ও লেখালিখির নির্দিষ্ট ক্ষেত্রটি হল সাহিত্য, ইতিহাস, ধর্মতত্ত্ব (মূলত ভারতীয় ধর্মগুলি), ভারততত্ত্ব, বঙ্গবিদ্যা (মূলত পশ্চিমবঙ্গ-বিষয়ক), সংগীত, ভূগোল, চলচ্চিত্রনাটক, লোকসংস্কৃতি, গ্রিক পুরাণ, রাজনীতি ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান ইত্যাদি। জন্মশহর কলকাতা এবং প্রিয় সাহিত্যিক রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সম্পর্কেও রয়েছে বিশেষ আগ্রহ। সম্প্রতি হাত দিয়েছি অত্যাবশ্যকীয় নিবন্ধগুলিকে পূর্ণাঙ্গ রূপ দেওয়ার কাজেও। আমি সাধারণত পশ্চিমবঙ্গ বাংলা আকাদেমি প্রবর্তিত বানান ও ভাষারীতির অনুসারী (তবে অন্ধভাবে নয়)।

অর্ণব সম্প্রতি বাংলা বিশ্বকোষ এবং বাংলা উইকিপিডিয়া নিয়ে একটি লেখা তার ব্লগে প্রকাশ করেছে। আমার মনে হয় উইকিপিডিয়ায় অবদান রাখতে লেখাটি আমাদের আরও অনুপ্রাণিত এবং উৎসাহিত করবে। তাই তার সহমতে লেখাটি এখানেও প্রকাশ করলাম,

আরও পড়ুন…

%d bloggers like this: